গাড়ির ত্রুটি শনাক্তে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করছে ফোর্ড

টেকভিশন২৪ ডেস্ক: বর্তমানে প্রায় সব ক্ষেত্রেই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। আর তাই চাকরি থেকে শুরু করে আর্থসামাজিক সব ক্ষেত্রে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা কী প্রভাব ফেলবে, তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই চলছে বিস্তর আলোচনা। এবার সত্যি সত্যিই মানুষের চাকরি নিজেদের দখলে নিয়েছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফোর্ড নিজেদের গাড়ি উৎপাদনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার শুরু করেছে। নিজেদের কারখানায় তৈরি করা গাড়ির গুণগত মান পরীক্ষার জন্য মানুষের বদলে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তানির্ভর টুল ব্যবহার করছে প্রতিষ্ঠানটি।

ফোর্ডের বিভিন্ন গাড়ির গুণগত মান নিয়ে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ করেন ব্যবহারকারীরা। গত কয়েক বছরে বিভিন্ন মডেলের গাড়ি বাজারে আনার পর ত্রুটি দেখা দেওয়ায় আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্তও হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। আর তাই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা টুলের মাধ্যমে উৎপাদনের সময়ই গাড়ির বিভিন্ন ত্রুটি শনাক্ত করতে চায় ফোর্ড।

ফোর্ডের তথ্যমতে, বর্তমানে ফোর্ডের এসকেপ হাইব্রিড ও ম্যাভেরিকের মতো হাইব্রিড যানবাহন তৈরিতে এআই টুল ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির ভ্যান ডাইক ইলেকট্রিক পাওয়ারট্রেন সেন্টারের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে এআই টুলটি কার্যকরভাবে গাড়ির বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করতে পারছে। এমনকি গাড়ির চাকায় থাকা টিউবের ত্রুটিও খুব সহজে শনাক্ত করছে এআই টুলটি।

ফোর্ডের ব্যবস্থাপক মার্ক শকাউকানি বলেন, এআই দিয়ে ইঞ্জিন ও চাকার ত্রুটি সহজেই শনাক্ত করা যাচ্ছে। বর্তমানে ফোর্ডের ২০টি কারখানার ৩২৫টি ওয়ার্কস্টেশনে এআই প্রযুক্তির টুলটি ব্যবহার করা হচ্ছে। টুলটি ৪৬৩টি উৎপাদন কাজের ধরন বিশ্লেষণ করতে পারে। গাড়ির মূল কাঠামোর বিভিন্ন সমস্যাও শনাক্ত করতে পারে। এই এআই টুল মূলত গাড়ির মানসংক্রান্ত সমস্যা সংশোধন করতে সাহায্য করছে। মাত্র দুই সেকেন্ডে গাড়িতে কোনো ত্রুটি আছে কি না, তা বলে দিতে পারে এআই টুলটি।-সূত্র : প্রথম আলো

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন