বিসিএস কম্পিউটার সিটির ২১ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে চলছে নানান আয়োজন

19

টিভি২৪ ডেস্ক:  ২১ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে আজ থেকে শুরু হচ্ছে তিন দিনের উৎসব। তিন দিনের এই আয়োজনে ক্রেতাদের জন্য নানা রকম ছাড় ও উপহার থাকছে।

১৯৯৯ সালের ১১ই সেপ্টেম্বর যাত্রা শুরু করা বিসিএস কম্পিউটার সিটি ঢাকার প্রাণকেন্দ্র শের-ই-বাংলা নগরের আগারগাঁওয়ের আইডিবি ভবনে অবস্থিত। নজরকাড়া স্থাপত্যশৈলীর অধিকারী আইডিবি ভবনে রয়েছে আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা ও আইসিটি পণ্যের সমাহার। আর এ কারনেই প্রতিদিন ক্রেতাগন এখানে আসেন আইসিটি বা প্রযুক্তি পণ্য কিনতে।  প্রায় ১০০,০০০ বর্গফুট আয়তনের চারতলা এই ভবনে ১৫৬ টির অধিক প্রযুক্তি পণ্য সেন্টার রয়েছে যেখানে কম্পিউটারের বিভিন্ন হার্ডওয়্যার, আনুসাংগিক যন্ত্রপাতি এবং আইটির বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করা হয়ে থাকে। এটিকে বলা হয় বাংলাদেশের আইটি শিল্পের কেন্দ্রস্থল। এখানে তথ্য প্রযুক্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন পণ্য পাওয়া যায় যেমনঃ ব্যাক্তিগত কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, সফটওয়্যার, ক্যামেরা, স্ক্যানার, প্রিন্টার ইত্যাদি। বিসিএস কম্পিউটার সিটি বছর জুড়েই কম্পিউটার মেলাসহ তথ্য প্রযুক্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন ইভেন্টের আয়োজন করে থাকে।

বিসিএস কম্পিউটার সিটি ২১ বছরে পদার্পণ উৎসবের উদ্বোধন করছেন আইসিটি সেক্টরের গণ্যমান্যরা।

আয়োজকেরা জানান, বিসিএস কম্পিউটার সিটি ২১ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে আমরা মার্কেট কমিটির পক্ষ থেকে ১০-১২ সেপ্টেম্বর তিন দিনের উৎসব আয়োজন করতে যাচ্ছি। আজ ১০ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ আমাদের স্পনসর মার্কেট কমিটি ও দোকান মালিকদের নিয়ে ফিতা কেটে আমাদের উৎসবে আয়োজন শুরু করব। এ উপলক্ষে আমরা সবার দোকানে দোকানে ও কাস্টমারদের মধ্যে মিষ্টি বিতরণের পাশাপাশি প্রতিটা ক্রেতার জন্য মাস্ক সহ বিভিন্ন উপহার সামগ্রী বিতরণ করব। তিন দিনের এই আয়োজনের মধ্যে আমাদের স্পন্সরদের পক্ষ থেকে সকল ক্রেতার জন্য নানা রকম ছাড় ও উপহার থাকছে। উৎসবের পাশাপাশি শিশুদের জন্য থাকবে অনলাইনে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতাও পুরস্কার এবং আমাদের মার্কেটটি নিয়ে স্মৃতিচারণ মূলক একটা আয়োজন থাকবে সেখান থেকে সেরা তিনজনের জন্য থাকবে উপহার সামগ্রী। স্পন্সর আসুস, ডিলিংক, এইচপি ও এমএসআই এর পক্ষ থেকে থাকবে উপহার সামগ্রী।

এ বিষয়ে কমিটির আহ্বায়ক ও বিসিএস কম্পিউটার সিটির বর্তমান সভাপতি মজহার ইমাম চৌধুরী (পিনু) বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে ও ২০২১ সালে উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখতে চাই। আশা করছি আমাদের ঐতিহ্যবাহী ও আধুনিক সিটিআইটি মার্কেটে সারাদেশের মানুষের পদচারণায় আবারও মুখরিত হবে কম্পিউটার মার্কেট। করোনার সার্বিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা এই আয়োজন করছি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন