ভিজিটর ও কন্টেন্ট সামলাতে হিমশিম অবস্থায় সরকারি ওয়েবসাইট

15
ছবি আরটিভি অনলাইন থেকে সংগৃহীত।

টিভি২৪ ডেস্ক: সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরসহ অধিকাংশ ওয়েবসাইটে তথ্যের গরমিলে সেবাগৃহীতারা ভোগান্তিতে পড়ছেন। অথচ ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ২০১১-১২ অর্থবছরে প্রতিটি সরকারি অফিসের জন্য হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে তৈরি করা হয়েছিল ২৪ হাজার ওয়েবসাইট। উদ্দেশ্য ছিল সরকারি সব কার্যক্রম সম্পর্কে সার্বক্ষণিক আপডেট থাকা এবং জনসাধারণকেও তাৎক্ষণিকভাবে হালনাগাদ কাঙ্ক্ষিত তথ্য দেওয়া। অথচ অধিকাংশ ওয়েবসাইটই ভুল তথ্যে ভরা, হালনাগাদও হচ্ছে না বছরের পর বছর। ফলে ওয়েবসাইটগুলোর তথ্য হালনাগাদ রাখতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ নির্দেশ দেয়। কিন্তু সেই নির্দেশ খুব বেশি নজরে নেয়নি সংশ্লিষ্টরা। ইতোমধ্যে সার্ভারের ত্রুটিতে প্রায় চারশ বেশি সরকারি দপ্তরের ওয়েবসাইট বন্ধ রয়েছে।

সম্প্রতি এই নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে সব মন্ত্রণালয়-বিভাগের সিনিয়র সচিব ও সচিব, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক (ডিসি) এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে। বর্তমান সরকার ঘোষিত রূপকল্প-২০২১ তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে জাতীয় তথ্য বাতায়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বর্তমানে মন্ত্রণালয় থেকে ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত মোট ৩৩ হাজার ৫২টি তথ্য বাতায়নে (পোর্টাল/ওয়েবসাইট) ৫০ হাজার ৯০৯টি সরকারি অফিস যুক্ত রয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

জানা গেছে, চারশর অধিক সরকারি দপ্তরের ওয়েবসাইট ত্রুটির মধ্যে রয়েছে। এসব ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট আপলোড ও ভিজিটর বেড়ে যাওয়ায় ত্রুটি হয়েছে। সার্ভার সম্প্রসারণের কাজ শেষে আগামী দুদিনের মধ্যে ওয়েবসাইটগুলো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে বলে ওয়েবসাইটগুলোর দেখভালের দায়িত্বে থাকা সরকারের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

শুধু তাই নয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়সহ অতি সংবেদনশীল বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের ওয়েবসাইটগুলোর সার্ভারেও সমস্যা দেখা দেয়ায় তা প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছিল। এটুআইর কর্মকর্তাদের তড়িৎ পদক্ষেপে আপাতত সেই সমস্যার সমাধান হয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রণালয়ের অধীন দপ্তর-অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যাচ্ছিল না। মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের সমস্যা অনেকটাই ঠিক হয়ে গেছে। তবে এখনও দপ্তর-অধিদপ্তর ও সংস্থার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। শুক্রবার খাদ্য অধিদপ্তর, তথ্য অধিদপ্তর, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যায়নি। বন্ধ হওয়া চারশর বেশি ওয়েবসাইটের মধ্যে মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, করপোরেশন, কমিশনের ওয়েবসাইট রয়েছে। তথ্যসূত্র: আরটিভি অনলাইন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন